ওজন কমানোর কিছু সহজ টিপস। কিভাবে কমাবেন মেদ?

ব্যাস্তবহুল এই জীবনে নিজের শরীরের আলাদা করে যত্ন নেওয়া যেন বিলাসিতা। মোটা থেকে রোগ হওয়াটা সত্যি খুব একটা সহজ সাধ্য ব্যাপার নয়। কিন্তু কিছু হেলথ টিপস মেইনটেন করলে কিছুটা হলেও কমিয়ে আনা সম্ভব। তবে আমরা এখানে সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপায়ে কিভাবে রোগা হওয়া যায় সেই সব বিষয় নিয়েই আলোচনা করব।

এক ঝলকে পড়ে নিন কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি যা অনুসরণ করে খুব সহজেই রোগা হতে পারবেন না মেদ ঝরাতে পারবেন...........

 

(1) মেডিটেশন বা ধ্যান : ভোরে বা সকালে উঠে 10 মিনিট মেডিটেশন করুন। এতে শরীর ও মন ভালো থাকবে। যা আপনাকে ভেতর থেকে strong বানাবে। 

(2) যোগ & ব্যায়াম: কিছু যোগ সাধন এর মাধমে বেলী ফ্যাট কমিয়ে ফেলা সম্ভব। টানা ৩ মাস নিয়ামিত এই ব্যায়াম গুলো সকাল সন্ধ্যা করে থাকলে নিঃসন্দেহে আপনার ওজন কমবে । এই গুল হল- Chaturangadandasana, Surya Namaskar, Dhanurasana, Parvatasana, ইত্যাদি। 

(3) হাঁটা, ছোটাছুটি, সাইকেল চালানো, সাঁতার কাটা (Walking, Jogging, Cycling and Swimming) : খুব তাড়াতাড়ি নিজের ওজন কমিয়ে রোগা হতে চাইলে এইগুলো করতে হবে। হার্ভার্ড হেলথ এর মত অনুযায়ী 70 কেজি এর মানুষ হাঁটা ছোটাছুটি করে 167 ক্যালোরি হ্রাস করতে পারেন। দিনে একবার 30 মিনিট সাঁতার কাটা আর সাইকেল চালানো খুব কার্যকর।

(4)গ্রিন টি সেবন :ওজন কমাতে গ্রিন টি এর জুড়ি মেলা ভার। গ্রিন টি ওজন কমাতে টনিকের কাজ করে। গ্রিন টি তে থাকে একটি বিশেষ ধরণের এন্টিঅক্সিডেন্ট যা দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে এবং দেহের অতিরিক্ত ফ্যাট ঝরিয়ে দেয়। দেহ থেকে অতিরিক্ত ফ্যাট কমে গেলে ওজন কমতে বাধ্য। তবে গ্রিন টি কখনোই চিনি দিয়ে তৈরি করবেন না।

(5) লেবু রস : ওজন কমানোর জন্য লেবু জলের জুড়ি মেলা ভার। লেবুতে থাকে সাইট্রিক অ্যাসিড যা দেহের অতিরিক্ত ফ্যাট কমিয়ে দেয় ফলে দেহের ওজন দ্রুত কমে যায়। সকাল বেলা ব্যায়াম করা হয়ে গেলে ২০ থেকে ২৫ মিনিট বিশ্রাম করুন। এরপর একগ্লাস হালকা গরম জল নিন। এবার একটি পাতি লেবুর রস এই জলের সাথে মিশিয়ে নিন। এর পর একচামচ মধু  জলের সাথে মিসিয়ে ভাল করে ছামছ নিয়ে নেরে এই জল পান করুন।

(6) মন খুলে হাসুন : অবাক হচ্ছেন তো? ভাবছেন ওজন কমানোর ক্ষেত্রে হাসির ভূমিকা কি? ওজন কমাতে হাসির ভুমিকা অনেকখানি। আর হাসির মধ্যে দিয়ে আপনার মন এবং শরীর দুই ভাল থাকবে সতেজ থাকবে।এছাড়া হাসি শরীরে কিছু পরিমাণ ক্যালরি কমাতে সাহায্য করবে।তাই মন খুলে হাসুন আর সুস্থ ভাবে বাচুন।

কি কি খাবেন না বা করবেন না?? 

চকলেট, মিষ্টি এবং পেস্ট্রি খাবার অবশ্যই ত্যাগ করুন। কার্বোহাইড্রেট জাতীয় খাবার কম খান। এর সাথে সাথে প্রোটিন জাতীয় খাবার বেশি খাবেন ।আলু কম খান। ফাইবার যুক্ত তরকারি খাবেন এবং শাক সবজিও খাবেন। মর্নিং ওয়ার্ক অব্যশই করতে হবে। মর্নিং ওয়ার্ক অব্যশই করতে হবে।দ্রুত ওজন কমানোর জন্য প্রতিদিন সকাল বেলা ঘুম থেকে উঠে হালকা ব্যায়াম করুন অথবা দৌড়ান। সকাল বেলা কম করে হলেও নিয়ম করে আধ ঘন্টা Exercise করুন। Exercise করার ক্ষেত্রে পুশ -আপ ব্যায়াম ভীষণ কার্যকরী।ব্যায়াম শরীর কে যেমন ফিট রাখে তেমনি মানসিক শান্তিও প্রদান করে।