আমি রোবট নোই ( I'm not a Robot) কেন আসে ? এর কারণ কী ? এতে কি কোনও ক্ষতি হতে পারে আপনার মোবাইল বা ডিভাইস এর?

আমাদের অনলাইনে সাইন আপ করতে গেলে বা কিছু কিনতে গেলে বা  রেল বা সিনেমার টিকিট কাটার সময় আমরা প্রায় সময় দেখি আমাদের স্ক্রিন এ দেখায় কিছু অদ্ভুত ধরনের লেখা আবার কখনও অনেক গুলো ছবি দেখিয়ে গাড়ি বা ট্রাফিক লাইট চিনতে হয়৷
অনেক সময় এই চিহ্ন ব্যবহার করতে হয় যেখানে লেখা থাকে আই এম নট রোবট ( আমি রবট নই) ক্যাপচা । অনেকেই মনে করে কি দরকার ছিল এই ঝামেলার ? কিন্তু এর পেছনে রয়েছে একটা বিরাট বড় কারণ!

আসুন জেনে নেই সেই কারণ......
ধরুন আপনি একটি ইমেল আইডি বানাছেন, সেক্ষত্রে আপনাদের একটা প্রসসেস এর মধ্যে দিয়ে যেতে হয়৷ প্রথমে নাম, মোবাইল নম্বর,আরো অনেক কিছু ইনফরমেশন দিতে হয়৷ তারপর হয়তো একটি ইমেল আইডি বানাতে পারেন। মোটামোটি ৭ থেকে ১০ মিনিট সময় লাগে। কিন্তু একজন প্রোগ্রামার এই পুরো প্রসেস টাকে একটা রোবট এর মধ্যে প্রোগ্রাম করে দিলে সেক্ষত্রে কয়েক সেকন্ড এ হাজার হাজার নকল ইমেল আইডি বানিয়ে ফেলতে পারবে এবং লাখ লাখ আইডি বানিয়ে জিমেইল কে ব্লক করে দিতে পারবে। আবার ধরুন কোন সিনেমা বা ট্রেনের টিকিট কাটতে, পেমেন্ট করতে, কোনও প্র্গামার যদি একটি বট অৰ্থাৎ রোবট এর মধ্যে  পুরোটা একটা প্রোগ্রাম করে দেয় তবে এর মধ্যে  কয়েক সেকন্ড এর মধ্যে সে অনেক টিকিট কেটে বেশি দামে বিক্রি করতে পারবে।  আমাদের ইঞ্জিনিয়াররা এই CAPTCHA  আবিষ্কার করেন যাতে যেই জিনিসগুলো মানুষ খুব সহজেই  সমাধান করতে পারে কিন্তু  বট তা পারেনা। বা অনেক সময় লাগবে ।

No Captcha recaptcha এর ইতিহাস জানতে হলে আমাদেরকে ফিরে যেতে হবে ১৯৯৭ সালে যখন প্রথম Captcha আবিষ্কার হয়।  তবে এর নামকরণ করা হয়েছে একটু পরে মানে ২০০৩ সালে। CAPTCHA মানে হল Completely Automated Public Turing test to tell Computers and Humans Apart । লুইস ভন অহন( Luis Von Ahn) হলেন এই Captcha এর আবিস্কারক। CAPTCHA আবিষ্কার করা হয় স্প্যাম (Spam) থেকে বাঁচার জন্য। 


১৯৯৮ সালে ইয়াহু( YAHOOH) তে হাজার হাজার ইমেল এড্রেস খোলা হয়েছিল এই স্প্যাম বট(রোবট) এর মাধমে। তখনি লুউস ভন CAPTCHA আবিষ্কার করেন এই রোবটটিক ক্রিয়াকলাপ থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্যে। 


একটা ক্লিক এ গুগল কীভাবে বুঝে আমি মানুষ নাকি রোবট?

 আপনি মানুষ নাকি রোবট তা বোঝার জন্যে মাউসের মুভমেন্ট খেয়াল করা হয়। মানুষ হলে মাউসটা এদিক-ওদিক একটু নড়ে চড়ে আসবে আর রোবট হলে সোজাসোজি আসবে। এছাড়াও আপনার আইপি এড্রেস, ব্রাউজিং কুকিজ, হিস্ট্রি, একই কাজ কতবার করার চেষ্টা করেছেন।  এবং আরো কিছু সিক্রেট ইনফরমেশন আছে যেগুলো গুগোল প্রকাশ করেনি। সেই জিনিস গুলো বিচার-বিশ্লেষণ করে বের করা হয় যে আপনি আসলেই মানুষ নাকি রোবট তবে কাজগুলো খুব দ্রুত করা হয় আর তার পরেও যদি সন্দেহ থাকে তাহলে ছবি আইডেন্টিফাই করতে হবে। সবশেষে বলব এটা আমাদের উপকারের জন্যই ব্যবহার করা হয় তাই মাঝে মাঝে একটু বিরক্তি আসলেও এইগুলো ফলো করাই আপনার জন্যে মঙ্গল।