পৃথিবী থেকে কিভাবে বিলুপ্ত হয়ে গেছে ডায়নোসর??

ছোটোবেলায় বাড়ির বড়োদের কাছে বা স্কুলে ডায়নোসরের অনেক গল্পই আমরা শুনেছি। তারা নাকি জলে, ডাঙায় এমনকী আকাশেও উড়ে বেড়াত। সাধারণতঃ চারটে পা থাকলেও সামনের দুটি পাকে তারা হাতের মতোই ব্যবহার করত। কিন্তু কেন একেবারে মুছে গেল তাঁদের অস্তিত্ব? ডাইনোসরগুলির বিলুপ্তির কারণ কী? সেই সব প্রশ্নের উত্তর জানতেন খুব ইচ্ছে করে তাই না? তবে চলুন জেনে নেওয়া যাক কিছু সাম্ভব্য কারণ যার জন্যে সম্পুর্ণভাবেবিলুপ্ত হয় যায় এই সরিসৃপ জাতিয় প্রাণী গুলি।

পৃথিবী থেকে কিভাবে বিলুপ্ত হয়েছিল ডাইনোসর?

সর্বশেষ ডাইনোসর প্রায় 65 মিলিয়ন বছর আগে মারা গিয়েছিল। যদিও তাদের বিলুপ্তির কারণ এখনও রহস্য, জলবায়ু পরিবর্তন, রোগ, উদ্ভিদ সম্প্রদায়ের পরিবর্তন এবং ভূতাত্ত্বিক ঘটনাগুলি সবই ভূমিকা নিতে পারে।

ডাইনোসর নামটা শুনলেই চোখের সামনে ভেসে ওঠে ভয়ঙ্কর কিছু বিশালদেহী প্রাণী।  বিজ্ঞানীরা গবেষণা করে আবিষ্কার করেছেন,ডাইনোসরেরা প্রায় 160 মিলিয়ন বছর  ধরে দাপিয়ে বেড়িয়েছে।  পৃথিবীর বুকে এক সময়ে বসবাস করতো যে অতিকায় ডাইনোসররা,  আজ শুধু পাওয়া যায় তাদের হাড়গোড়।  কারণ, এখন থেকে প্রায় 6 কোটি 60 লক্ষ বছর আগে  এক ভয়ঙ্কর ঘটনার পরিণতিতে তারা সবাই বিলুপ্ত হয়েছে। 

ইদানীং ডায়নোসর বিলুপ্তির তত্ত্বগুলি বিতর্কের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে৷ অনেক বিজ্ঞানী দ্বারা সমর্থিত একটি সাম্প্রতিক ব্যাখ্যা থেকে বোঝা যায় যে মেক্সিকো উপসাগরের নিকটে একটি বিশাল উল্কাপূর্ণ পৃথিবীতে বিধ্বস্ত হওয়ার পরেই ডাইনোসর মারা গিয়েছিল।

প্রায় 230 মিলিয়ন বছর পূর্বে প্রথম ডাইনোসরেরা আলোর মুখ দেখে বলে জানা যায়। এখন থেকে প্রায় 65 মিলিয়ন বছর আগেই কোনো এক প্রাকৃতিক  বিপর্যয় ধ্বংস করে দিয়েছিল ডাইনোসরদের প্রভাব।  এই প্রাণী কিভাবে বিলুপ্ত হয়েছিল সেটি নিয়ে কল্পনা-জল্পনার শেষ নেই।  গবেষকরা বহুদিন যাবত তত্ব  দিয়ে আসছেন,  একটি গ্রহাণুর আঘাতে পৃথিবীতে ডাইনোসরদের পরিসমাপ্তি ঘটেছিল। 

 জলবায়ুর পরিস্থিতি এতটাই নাটকীয়ভাবে বদলেছে যে ডাইনোসররা আর বাঁচতে পারেনি।
আগ্নেয়গিরি থেকে ছাই এবং গ্যাসের স্প্রিং অনেকগুলি ডাইনোসরদের দম বন্ধ করে দেয়। আর তারা মারা যায়। এছারাও বিভিন্ন রকমের 
রোগগুলি ডাইনোসরগুলির পুরো জনসংখ্যাকেই মুছে দিয়েছে পৃথিবী থেকে।
খাদ্য সৃ়্ংখলের ভারসাম্যহীনতা ডাইনোসরদের অনাহারে ডেকে আনে। আর পর্যাপ্তভাবে খাবার না পাওয়ার জন্যেই তাঁরা মারাযায়।

সাধারণতঃ দিরঘকাল প্রজননে অনুকূল পরিবেশ না পেয়ে প্রজনন‌ ক্ষমতা হ্রাস পায় এবং এই কারণেও কোনও কোনও প্রজাতির ডায়নোসর বিলুপ্ত হয়।আবার অনেকে বপেন পৃথিবীতে হঠাৎ করে তুষার যুগের আবির্ভাব ঘটে যার কারণে আতাধিক শীতের কারণেই মারা যায় ডায়নোসর গুলি।

গবেষকরা মনে করেন, ডাইনোসর বিলুপ্তির পিছনে মূলত  প্রচণ্ড আঘাত এবং তা থেকে সৃষ্ট দুর্যোগই দায়ী,  সেই সাথে পৃথিবীর জলবায়ুগত  প্রতিকূলতাকে দায়ী করছেন তারা। পৃথিবীতে এক বিরাট আকারের গ্রহাণুর আঘাতে  যে বিস্ফোরণ ও পরিবেশগত পরিবর্তন হয়েছিল সেটাই ডাইনোসরদের বিলুপ্ত হয়ে যাওয়ার প্রধান কারণ। গবেষকদের মতে, এত জোরে এটি পৃথিবীর বুকে আছড়ে পড়েছিল যে, তাতে 200 কিলোমিটার চওড়া এবং কয়েক কিলোমিটার গভীর একটি জ্বালামুখ তৈরি হয়েছিল। এভাবে ডাইনোসরদের বিলুপ্তির পর পৃথিবীতে শুরু হয় স্তন্যপায়ী প্রাণীদের যুগ।