রোহিত বিরাটের দুর্ধর্ষ ব্যাটিংয়ে ভেঙে গেল ইংল্যান্ডের বোলিং লাইন আপ। সিরিজ ছিনেয়া নিল ইংল্যান্ডের থেকে।

সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টিও হয়েছিল নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামে ভারত 2-1 এ পিছিয়ে থাকার পর আগের ম্যাচে দুরন্ত কাম ব্যাক করে দেখিয়ে দিয়েছিল  টসে হেরেও ম্যাচ জেতা যায়।

   গতকাল ছিল সিরিজের লাস্ট ম্যাচ সিরিজ 2-2 এর দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে দুটি দলের মধ্যে ছিল মাস্ট উইন ম্যাচ । যে হারবে তাকে সিরিজ খোয়াতে হবে। টস হলো কিন্তু টসে আবারো ভারতের ভাগ্যে এলোনা। টস  জিতল ইংল্যান্ড, ইংল্যান্ড জিতে প্রথমে বল করার সিদ্ধান্ত নিল।
 
    এই দিকে ভারত টিম ঠিকঠাক রাখার জন্য বোলিং লাইনআপকে আরো দৃঢ় করার জন্য কে এল রাহুল কে বসিয়ে ইয়োরকার পেশালিস্ট নটরাজনকে টিমে নেয়।

     ভারতীয় দল প্রথমে অবাক করে ভারতের টিমের জয় ভীরু অর্থাৎ বিরাট ও রোহিত দুজনে ওপেনিং করতে আসে । রোহিত শর্মা এই ম্যাচে Ro-hit-man  এর ছন্দে ফিরে আসে বলে বলে দুরন্ত 4-6 মেরে ইংল্যান্ডের বোলিং লাইন আপ কে প্রথমেই ভেঙে দেয়। মাত্র 34 বলে 64 রানের দুরন্ত ইনিংস খেলে রোহিত শর্মা। রোহিত শর্মা আউট হওয়ার পর ব্যাটিং করতে আসে  আগের ম্যাচের রুপ ঘুরিয়ে দেওয়া সূর্য কুমার যাদব আবারো সূর্য কুমার যাদব  দ্বিতীয় বলে বিশাল ছক্কা হাঁকিয়ে দেখিয়ে দেয় সে কতটা ফর্মে আছে। সূর্য কুমার যাদব মাত্র 17 বলে 32 রানের একটা ফার্স্ট ইনিংস খেলে। এরপর হার্তিক কেউ তার পুরনো ছন্দে দেখা যায় সেও 17 বলে 39 রানের একটা দুরন্ত ইনিংস খেলে নটআউট থাকে এবং ওপেনিং করা বিরাট কোহলি প্রথমে ধীরে খেললেও লাস্টে 4-6 এর বন্যা বইয়ে দেয়। বিরাট কোহলি মাত্র 52 বলে 80 রানের একটা বিরাট ইনিংস খেলে তার দৌলতে ভারত ইংল্যান্ডকে 225 একটা বিশাল টার্গেট দেয়।

   

     ইংল্যান্ডের ইংল্যান্ডের তরফ থেকে ওপেনিং করতে আছে জস বাটলার এবং জেসন রয়। জেসন রয় আগের ম্যাচের মতো এই ম্যাচে অফ লাভ হয়। ভারতের টিমে সুইং এর রাজকুমার অর্থাৎ ভুবনেশ্বর কুমার দ্বিতীয় বলেই জেসন রয় কে বোল্ড আউট করে দেয়। এরপর মালান ও বাটলার নিজেদের রুদ্ররূপে 4-6 মেরে দলের এবং নিজের রান এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকে। সেই সময় মনে হয়েছিল ইংল্যান্ডের এই দুই তারকা ভারতের বোলিং লাইন আপকে যেন ধসিয়ে ফেলছে। এরপর বিরাট কোহলি তার মেন বলার ভুবেনেশ্বর কুমার কে ফিরিয়ে আনে ভুবেনেশ্বর কুমার সেই ওভারে জশ বাটলার কে আউট করে ম্যাচের রূপ আবার ভারতের দিকে ঠেলে দেয়। জস বাটলার 34 বলে 52 রানের একটা ভালো ইনিংস খেলে। এরপর ইংল্যান্ড ব্যাটিংরা ছন্দ হারিয়ে ফেলে। কয়েক ওভার আগে দুরন্ত দেখতে পাওয়া ইংল্যান্ডের ব্যাটিং লাইনআপ আবার যেন মাথা নামিয়ে দেয় এই বিশাল টার্গেট এর কাছে । এই ম্যাচে ভারত 36 রানে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে সিরিজ নিজের নামে করে। এই ম্যাচের হিরো ছিল ভুবনেশ্বর কুমার যে মাত্র 15 রানে দুটি গুরুত্বপূর্ণ উইকেট নিয়ে ভারতের জয়কে সুনিশ্চিত করে।